শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১

admin | জনপ্রিয় বিনোদন

প্রকাশ: রবিবার, আগস্ট ১৬, ২০২০

* ঈদ কেমন কাটল?

** করোনাভাইরাসের কারণে সেভাবে এবারও ঈদ পালন করা হয়নি। রোজার ঈদ যেভাবে কেটেছে কোরবানির ঈদও সেভাবেই কেটে গেল। বাসাতেই ছিলাম। সহকর্মীদের নাটক দেখেছি, পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়েছি। বাইরে কোথাও যাইনি। তবে করোনাকালে ভিন্ন আর বিরল অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছি।

* কী সেই অভিজ্ঞতা?

** আমার বাবা আমেরিকায় বোনের কাছে আছেন। এই প্রথম রোজা ও কোরবানি দুই ঈদ বাবা-মাকে ছাড়া করতে হয়েছে। তবে এবার দুই ঈদেই শ্বশুরবাড়ি ছিলাম। বাবা-মায়ের সঙ্গে ভিডিওকলে কথা হয়েছে। আমার শাশুড়ি মজার মজার খাবার রান্না করেছেন, সেগুলো উপভোগ করেছি। এর বেশি কিছু করার ইচ্ছা থাকলেও আমি তা পারিনি। কারণ ঈদের দুই দিন আগ পর্যন্তও আমার শুটিং ছিল।

* সংসারের কাজ কতটা আয়ত্ত করতে পেরেছেন?

** একদমই না, কিছুই শিখতে পারিনি এখনও। এজন্য আমার ব্যস্ততাও অন্যতম একটি কারণ। আবার আমার শাশুড়ি রান্না বা সংসারের কাজের ব্যাপারে আমাকে ততটা জোর করেন না। তিনি বলেন, ‘যদি তোমার ইচ্ছা হয় তবে রান্না বা অন্যান্য কাজ কর’। এর মধ্যে আবার আমাকে অনলাইনে ক্লাস করতে হয়, শুটিং করতে হয়। বেশ ব্যস্ত সময় যায়। তারপরও যতটা সম্ভব সংসারের কাজে সাহায্য করার চেষ্টা করি। কাজকর্ম, পড়ালেখা, সংসারের কাজ ব্যালেন্স করে চলছি। তবে কেউ অভিযোগ করেনি এখনও।

* ঈদের আগে তো কয়েকটি নাটকের শুটিং করেছেন। পরিবেশ কেমন ছিল?

** এ ক্ষেত্রে আমি হয়তো অনেক লাকি। কারণ যেসব পরিচালকের সঙ্গে কাজ করেছি তারা অনেক সতর্কতা ও সচেতনতা মেনে চলেছেন। যেমন, আমি যেখানে শুটিং করেছি সেসব জায়গা কিছুক্ষণ পরপর জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে। সবার কাছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ছিল। এতে করে সবাই নিজেকে জীবাণুমুক্ত রেখেছেন। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক ছিল। বাইরে থেকে কাউকে ভেতরে ঢুকতে দেয়া হয়নি। আর শুটিং ইউনিটের যদি কেউ বাইরে যেত, ফিরে আসা মাত্র তাকে জীবাণুমুক্ত করা হতো। খুবই সীমিত মানুষ নিয়ে কাজ করা হয়েছে। এজন্য স্ক্রিপ্টে বেশকিছু পরিবর্তন এসেছে। অনেক পরিচালককে এক ঘরের মধ্যে অনেক কাজ শেষ করতে হয়েছে। এতে করে তারা নিজেদের সৃজনশীলতা কাজে লাগিয়ে স্ক্রিপ্টটাকে ভিন্নভাবে নিয়ে ব্যতিক্রম কাজ করতে পেরেছেন।

* পর্দায় ঈদের ব্যস্ততা কেমন ছিল?

** রোজার ঈদে তো কোনো কাজ করা হয়নি। পুরনো দুটি নাটক প্রচারিত হয়েছিল। তারপর কোরবানির ঈদ সামনে রেখে বেশকিছু কাজ করেছি। এবার চেষ্টা করেছি ভিন্ন টাইপের কিছু করার। সেই জায়গা থেকে দর্শকদের উপহার দিতে গিয়ে দর্শকই আমাকে উপহার দিয়ে ফেলেছে।

* সামনের পরিকল্পনা কী?

** ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নাটকের একটি শুটিং হতে পারে কিছুদিনের মধ্যে। সেটি নিয়েই হয়তো আমার ফেরা হবে। এছাড়া কিছু স্ক্রিপ্ট আছে হাতে। সেগুলো পড়ব। তারপর ভালো লাগলে কাজের সিদ্ধান্ত নেব। তাছাড়া ধন্যবাদ দিতে চাই ভক্ত-অনুরাগী, দর্শক ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের। কারণ এবার যে কাজগুলো করেছি তাতে ভালো সাড়া পেয়েছি।

Ad The It King