শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১

admin | অন্যান্য জনপ্রিয়

প্রকাশ: সোমবার, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯

এক যৌনকর্মীকে অন্ধকার জগৎ ছেড়ে এসে তাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন এক যুবক। কিন্তু ওই নারী রাজি না হওয়ায় তাকে খুন করে দেহ পাঁচ টুকরা করেছেন সেই যুবক।

এমনই ঘটনা ঘটেছে ভারতের নয়াদিল্লিতে। এ ঘটনায় ঘাতক ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

দিল্লি পুলিশ বলছে, অভিযুক্ত ঘাতকের নাম মোহাম্মদ আইয়ুব। তিনি বিবাহিত ও তিন সন্তানের জনক। লতা ওরফে সালমা নামে এক যৌনকর্মীকে খুন করেন তিনি। দেহ ব্যবসার কাজ ছেড়ে বিয়ে করতে বলেছিলেন আইয়ুব। লতা রাজি না হওয়ায় তাকে খুন করেন এই যুবক।

২০০৮ সালে একটি যৌনপল্লীতে লতার সঙ্গে প্রথম দেখা হয় আইয়ুবের। লতার কাছেই বারবার যেতেন তিনি। এই দীর্ঘ সময়ে একাধিকবার তাকে বিয়ের প্রস্তাবও দিয়েছেন তিনি। কিন্তু বারবার সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় দিল্লির বাওয়ানা ক্যানালের কাছে লতাকে নিয়ে গিয়ে খুন করেন অভিযুক্ত যুবক।

প্রথমে গলা কেটে হত্যা করেন তাকে। পর তার মরদেহ যেন চেনা না যায় সেজন্য ৫টি টুকরো করে বিভিন্ন স্থানে ফেলে দেন তিনি।

কৈলাশনাথ কাটজু মার্গ পুলিশ স্টেশনে ক্যানাল থেকে দেহ উদ্ধারের পর মামলা দায়ের করা হয়। এরপর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিল্লির তুর্কমান গেট থেকে ঘাতক আইয়ুবকে গত শুক্রবার গ্রেফতার করে পুলিশ।

Ad The It King