শনিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২১

Fit It | অন্যান্য করোনা

প্রকাশ: রবিবার, মে ৩০, ২০২১

ভিয়েতনামে নতুন করোনা – ভারত যুক্তরাজ্য ‘হাইব্রিড’ করোনা শনাক্ত

নতুন ধরন (ভেরিয়েন্ট) শনাক্ত করেছে ভিয়েতনাম। এই করোনা ভারত ও যুক্তরাজ্যের শনাক্ত করোনার সংমিশ্রণ। ‘হাইব্রিড’ এ করোনা বাতাসের মাধ্যমে দ্রুত ছড়াতে পারে। ভিয়েতনামের কর্মকর্তাদের মাধ্যমে আজ রোববার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

গতকাল শনিবার ভিয়েতনামের স্বাস্থ্যমন্ত্রী নগুয়েন থানহ লং করোনার এই মিউটেশনকে ‘খুবই বিপজ্জনক’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

করোনাভাইরাস প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত হয়। পরিবর্তিত হয়ে নিজের নতুন নতুন ভেরিয়েন্ট তৈরি করছে। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে শনাক্ত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের হাজারো মিউটেশন চিহ্নিত করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, করোনার নতুন ধরনটি নিয়ে একটি সরকারি বৈঠকে কথা বলেন ভিয়েতনামের সরকার।

বৈঠকে ভিয়েতনামের স্বাস্থ্যমন্ত্রী নগুয়েন বলেন, আমরা করোনার একটি নতুন ধরন শনাক্ত করেছি। ভারত ও যুক্তরাজ্যে প্রথম শনাক্ত হওয়া করোনার দুটি বিদ্যমান ধরনের একটি মিশ্র বৈশিষ্ট্য রয়েছে ভিয়েতনামে শনাক্ত করোনার নতুন ধরনটিতে।
নগুয়েন বলেন, আগে শনাক্ত হওয়া করোনার সংস্করণগুলোর চেয়ে নতুন এই হাইব্রিড ধরন বেশি সংক্রামক, বিশেষ করে বাতাসে।

ভিয়েতনামে নতুন শনাক্ত হওয়া রোগীদের মধ্যে পরীক্ষা চালিয়ে করোনার এ ধরন পাওয়া গেছে বলে জানান নগুয়েন। তিনি বলেন, নতুন শনাক্ত ধরনের জেনেটিক কোড আমরা দ্রুতই প্রকাশ করবো।

ভারতে শনাক্ত করোনার নতুন ধরনটি ‘বি.১.৬১৭.২’ নামে পরিচিত। ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে এ ধরন ভাইরাস শনাক্ত হয়। আর যুক্তরাজ্যে শনাক্ত করোনার নতুন ধরনটি ‘বি.১.১.৭’ নামে বিশ্বে পরিচিত। যুক্তরাজ্যের চেয়ে করোনার ভারতীয় ধরনটি বেশি সংক্রামক বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

ভারতে করোনার সংক্রমণের বিশালতার কারনেই নতুন ধরনকে অনেকাংশে দায়ী করা হচ্ছে। করোনার ভারতীয় ধরনকে আশঙ্কাজন হিসেবে চিহ্নিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

করোনা নিয়ন্ত্রণে ভিয়েতনামের সফলতার বিশ্বে সুপরিচিত। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ভিয়েতনামে করোনার সংক্রমণ সংখ্যা বাড়তে দেখা যাচ্ছে।

ভিয়েতনামে এখন পর্যন্ত করোনায় ৬ হাজার ৭০০ জনের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ সংখ্যার মধ্যে অর্ধেকের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে চলতি বছরের এপ্রিলের শেষর দিক থেকে শুরু হয়েছে যা বর্তমান সময় পর্যন্ত বাড়ছে। ভিয়েতনামে এখন পর্যন্ত করোনায় ৪৭ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ভিয়েতনামে করোনার টিকাদান কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।