ভারতেও লাগামহীন পেঁয়াজের দাম!

0
220

পশ্চিমবঙ্গেও লাগামহীন পেঁয়াজের বাজার। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। বুধবার রাজ্যের মুর্শিদাবাদের বেশ কিছু বাজার এবং কলকাতার একটি বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১৫০ টাকা কেজি দরে।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, মুর্শিদাবাদের হরিহরপাড়া বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে কেজি-প্রতি ১৫০ টাকায়। নওদার আমতলা বাজারেও পেঁয়াজের দাম ১৪০-১৫০ টাকা কেজি।

এদিকে কলকাতার রাজডাঙা বাজারে বিক্রি হয়েছে ১৫০ টাকা কেজিতে। গড়িয়াহাট, মানিকতলা, লেক মার্কেট, ল্যান্সডাউনের বাজারে বিক্রি হয়েছে ১৪০ টাকায়।

তবে মফ্চ্ছলের বাজারগুলোতে বর্ষাকালীন নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১০০-১২০ টাকা কেজি দরে। অপরদিকে ভারতের রাজধানী দিল্লিতেও পেঁয়াজের দাম সেঞ্চুরি করে ফেলেছে।

কলকাতায় টাস্কফোর্সের সদস্যরা জানান, চাহিদার তুলনায় বাইরের রাজ্যগুলো থেকে পর্যাপ্ত জোগান না আসাতেই সমস্যা। পাইকারি বাজারেই পেঁয়াজের কেজি ১২০ টাকা।

খবরে বলা হয়, কয়েক মাস আগেও সাড়ে তিন থেকে সর্বাধিক ছয় টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করেছেন মুর্শিদাবাদের চাষিরা। তারা বলছেন, সংরক্ষণের ব্যবস্থা না থাকায় ক্ষেত থেকে তুলেই কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে বাধ্য হন তারা।

তবে রাজ্য সরকারের সুলভ মূল্যের বাজার বা ভ্রাম্যমাণ গাড়িগুলোতে ৫৯ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

ঘাটতি মেটাতে মিসরের পর তুরস্ক থেকে পেঁয়াজ আনছে ভারত। ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান এমআইএমটিসি কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে তুরস্ক থেকে ১১ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির ফরমায়েশ পাঠিয়েছে।

এর আগে মিসর থেকে ছয় হাজার ৯০ টন পেঁয়াজ আমদানির প্রক্রিয়া চলছে। দেশের বাজারে মূল্য নিয়ন্ত্রণ ও ঘাটতি পূরণে গত মাসে ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা এক লাখ ২০ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমোদন দেয়।

ইতোমধ্যে বিশ্বের অন্যতম পেঁয়াজ রফতানিকারক দেশ ভারত পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here