1. techostadblog@gmail.com : Fit It : Fit It
  2. mak0akash@gmail.com : AL - AMIN KHAN : AL - AMIN KHAN
  3. admin@sangbadbangla.com : admin :
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:২০ পূর্বাহ্ন

নির্জন দ্বীপে যেমন কেটেছে নাগিনকন্যার জন্মদিন

Reporter Name
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২০
  • ১২২ বার পঠিত

গত সাত মাস করোনার কারণে বিশ্ববাসী গৃহবন্দী দশা কাটিয়েছে। এদিকে এই করোনার তাণ্ডবের মধ্যেই বলিউডের বাঙালি অভিনেত্রী মৌনি রায় নানান দেশ ঘুরে বেড়িয়েছেন। আর সে জন্য অবশ্য তাঁকে অনেক কাঠখড়ও পোড়াতে হয়েছে।
লকডাউনে বেশির ভাগ বলিউড তারকাই পরিবারের সঙ্গে ঘরে সময় কাটিয়েছেন। এদিকে এই লকডাউন দারুণভাবে উপভোগ করেছেন বলিউড অভিনেত্রী মৌনি রায়। গত সাত মাসের অধিকাংশ সময় তিনি দেশের বাইরে কাটিয়েছেন। সংযুক্ত আরব আমিরাত, লন্ডন, মালদ্বীপসহ নানান দেশ ঘুরে বেড়িয়েছেন মৌনি। তবে এ জন্য তাঁকে গত সাত মাসে সাতবার করোনা পরীক্ষা করাতে হয়েছে। কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়েছে। আর এই সবকিছুকে ‘কষ্টদায়ক এবং বিরক্তিকর’ বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে একই সঙ্গে করোনাসংক্রান্ত পরীক্ষা করানো অত্যন্ত জরুরি বলেও মনে করেন মৌনি।

মৌনি রায়
মৌনি রায়

মৌনি লকডাউনের বেশ কয়েক মাস লন্ডনে তাঁর বোনের পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন। এই বলিউড তারকার বোন অনীশার সাত ও চার বছরের দুই সন্তান আছে। ৭৫ ও ৬৯ বছরের বৃদ্ধ শ্বশুর-শাশুড়িও তাঁর বোনের সঙ্গে থাকেন। তাই শিশু আর বৃদ্ধদের নিরাপত্তার জন্য আড়াই মাস বাসার বাইরে পা রাখার অনুমতি পাননি মৌনি।

মৌনি সম্প্রতি তাঁর জন্মদিন মালদ্বীপের নির্জন সমুদ্রসৈকতে উদযাপন করেছেন। গত ২৮ সেপ্টেম্বর ৩৫–এ পা রাখলেন মৌনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই নায়িকা লিখেছেন যে মালদ্বীপে পা রাখার সঙ্গে সঙ্গে সেখানকার চিকিৎসক করোনা পরীক্ষা করেছিলেন। আর তার পরের দিন সকালে তিনি রিপোর্ট হাতে পেয়েছিলেন। মৌনি আরও জানান, একবার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এলে মাস্ক ছাড়াই সমুদ্রতটে যাওয়ার অনুমতি পাওয়া যায়। আর সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে ভোলেননি এই নাগিন।

মৌনিকে দেখা যাবে পরিচালক আয়ান মুখার্জির পরের ছবি ‘ব্রহ্মাস্ত্র’–তে। আয়ান মুখার্জির আরেক পরিচয়, তিনি মৌনির প্রেমিক। এ ছবিতে ছোট পর্দার এই নাগিন অভিনয় করছেন খলনায়িকার চরিত্রে। মৌনির সঙ্গে এ ছবিতে আরও আছেন অমিতাভ বচ্চন, রণবীর কাপুর, আলিয়া ভাট, নাগার্জুন, ডিম্পল কাপাডিয়ার মতো বড় তারকারা।

মৌনি রায়
মৌনি রায়

মৌনি টেলিভিশন দুনিয়ায় ‘নাগিনকন্যা’ হিসেবে পরিচিত। সুপারহিট টেলিভিশন ধারাবাহিক ‘নাগিন’–এর মাধ্যমে তিনি মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে গিয়েছিলেন। অক্ষয় কুমারের সঙ্গে ‘গোল্ড’ ছবিতে অভিনয় করে বলিউডে পা রেখেছিলেন মৌনি। সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ‘লন্ডন কনফিডেন্সিয়াল’ ছবিটি ঘিরে আলোচনায় রয়েছেন তিনি। এ ছবিতে তাঁকে প্রথমবার ‘র’ এজেন্টের ভূমিকায় দেখা গেছে।

কোচবিহারের মেয়ে মৌনি রায় ২০০৭ সালে প্রথম অভিনয় করেন স্টার প্লাসের ‘কিউ কি সাস ভি কাভি বহু থি’ সিরিয়ালে
কোচবিহারের মেয়ে মৌনি রায় ২০০৭ সালে প্রথম অভিনয় করেন স্টার প্লাসের ‘কিউ কি সাস ভি কাভি বহু থি’ সিরিয়ালে

কোচবিহারের মেয়ে মৌনি রায় ২০০৭ সালে প্রথম অভিনয় করেন স্টার প্লাসের ‘কিউ কি সাস ভি কাভি বহু থি’ সিরিয়ালে। এখানে ‘কৃষ্ণা তুলসী’ চরিত্রটি তাঁকে দর্শকদের কাছে জনপ্রিয় করে। এরপর তিনি অভিনয় করেছেন আরও ৯টি সিরিয়ালে। অংশ নিয়েছেন বিভিন্ন রিয়েলিটি শোতে। ‘কৃষ্ণা তুলসী’র পর তিনি প্রশংসিত হন লাইফ ওকের ‘দেবন কে দেব…মহাদেব’ সিরিয়ালের ‘সতী’ আর কালারস টিভির ‘নাগিন’ সিরিয়ালে ‘শিবাঙ্গি’ চরিত্রে অভিনয় করে। ছোট পর্দায় ১০ বছর কাজ করার পর সফল ও জনপ্রিয় তারকা মৌনি রায় বড় পর্দায় প্রথম অভিনয় করেন ‘গোল্ড’ ছবিতে।বিজ্ঞাপন

এই ছবিতে তিনি ছিলেন অক্ষয় কুমারের বিপরীতে। তার ওপর ছবির পরিচালক রীমা কাগতি। তখন এই টেলি সুন্দরী বলেছেন, ‘প্রতিটি দৃশ্যে আমি অক্ষয়ের কাছ থেকে কিছু না কিছু শিখেছি। অসম্ভব পরিশ্রমী তিনি। অক্ষয় সেটে সব সময় হাসি আর আনন্দে ভরিয়ে রাখতেন। ভবিষ্যতে অক্ষয়ের সঙ্গে বিনা পারিশ্রমিকেও কাজ করতে রাজি আছি।’

গেল বছর মুক্তি পেয়েছে মৌনি রায়ের ছবি ‘রোমিও আকবর ওয়াল্টার’
গেল বছর মুক্তি পেয়েছে মৌনি রায়ের ছবি ‘রোমিও আকবর ওয়াল্টার’

গেল বছর মুক্তি পেয়েছে মৌনি রায়ের ছবি ‘রোমিও আকবর ওয়াল্টার’। জন আব্রাহাম আর জ্যাকিশ্রফের সঙ্গে তাল মিলিয়ে অভিনয় করেছেন তিনি। এ ছাড়া রাজকুমার রাওয়ের সঙ্গে কাজ করছেন ‘মেড ইন চায়না’ ছবিতে আর নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির সঙ্গে ‘বোলে চুড়িয়া’ ছবিতে দেখা যাবে তাঁকে। অয়ন মুখার্জির ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ ছবিতেও আছেন। এই ছবিতে আরও আছেন অমিতাভ বচ্চন, রণবীর কাপুর, আলিয়া ভাট।

মৌনি রায় এখন বলিউডে নিজের অবস্থান মজবুত করছেন। কিন্তু এর জন্য এক কঠিন সময় তাঁকে পার করতে হয়েছে। বললেন, ‘কোচবিহার, দিল্লি আর মুম্বাই; আমার কাছে তিনটা আলাদা জীবন। আজ পর্যন্ত যতটুকু পেয়েছি, তাতেই খুশি। প্রতিদিন সকালে খুশিমনে ঘুম থেকে উঠি, এটাই আমার সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি।’ ছোট পর্দা আর বড় পর্দার মধ্যে পার্থক্য বললেন এভাবে, ‘দুটোই ভালো লাগে। ফিল্ম হোক বা টিভি, আমার কাছে স্ক্রিপ্ট আর চরিত্র সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এখন প্রতি মাসে দু-তিন দিন ছুটি পাই। ফিল্মে কাজের সময়টা একটু ফ্লেক্সিবল। টিভিতে শুধু কাজ, কাজ আর কাজ।’

মৌনি রায় এখন বলিউডে নিজের অবস্থান মজবুত করছেন
মৌনি রায় এখন বলিউডে নিজের অবস্থান মজবুত করছেন

এই পোস্টটি সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
© ২০১৯, সংবাদ বাংলা
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: The IT King