‘নাম কোথায়? পারিশ্রমিকও পাইনি’

0
39
sreelekha mitra naked pic, videos

ঠিক দু’বছর আগের একটা ছবি। সেই ছবির পারিশ্রমিক এবং ক্রেডিট লাইন নিয়ে পরিচালক ও অভিনেত্রীর কাজিয়ায় সরগরম হয়ে উঠল সোশ্যাল মিডিয়া। বুধবার (৩ জুন) শ্রীলেখা মিত্র নেটফ্লিক্সে থাকা তাঁর ছবি ‘রেনবো জেলি’র একটি স্ক্রিনশট পোস্ট করেন ফেসবুকে। বক্তব্য, তাঁর অভিনীত পরি পিসির চরিত্রটি ছবির অন্যতম ইউএসপি। অথচ নেটফ্লিক্সের সাইটে অভিনেতার তালিকায় তাঁর নাম নেই।

পরিচালক সৌকর্য ঘোষালের কাছে এর জবাবদিহি চেয়েছেন অভিনেত্রী। সৌকর্য বলছেন, ‘নেটফ্লিক্সের লিস্টে নাম না থাকার বিষয়টি সত্যি নয়। এক একটা ফরম্যাটে তালিকাটা এক এক রকম দেখায়। উনিও জানেন এটা। কিন্তু একটু কাদা ছোড়াছুড়ি করে পাবলিসিটি পাওয়ার জন্যই হয়তো এটা করলেন।’

এ দিকে শ্রীলেখার কথায়, ‘এত দিন পরে আমার পাবলিসিটির প্রয়োজন নেই। পরিচালক আদিত্য বিক্রম (সেনগুপ্ত) অনেক দিন আগেই নামের বিষয়টি জানিয়েছিল। তখন গুরুত্ব দিইনি। আরও কয়েকজন বলার পরে মনে হল, আমার স্টেপ নেওয়া উচিত। আর এই ছবির জন্য সৌকর্যর কাছ থেকে পারিশ্রমিক পাইনি।’ সৌকর্য অবশ্য অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বললেন, ‘আমার কাছে জিএসটি সার্টিফিকেট আছে। অন্যান্য ছবি থেকে উনি যে পারিশ্রমিক নেন, এ ক্ষেত্রে তার চেয়ে বেশিই নিয়েছিলেন।’ অভিনেত্রীর সব অভিযোগ যেমন পরিচালক নাকচ করছেন, তেমনই অভিনেত্রীও পরিচালকের বিপরীত সুরে গাইছেন। ‘টাকাপয়সার সমস্যা ছিল বলে পরে টাকা নেব বলেছিলাম।

কিন্তু দেড় বছর পরেও টাকা না পাওয়ায় সৌকর্যকে ফোন করি। সটান বলে, ‘কীসের টাকা?’ সেই রেকর্ডিং আছে। যে বাড়িটায় শুট হয়েছিল, আমার চেনাজানার সুবাদে শুটিংয়ের টাকা লাগেনি। মিউজ়িক রিলিজ়ের অনুষ্ঠানও বিনামূল্যে করিয়ে দিয়েছিলাম।’ সৌকর্য আর শ্রীলেখার এই বাগ্বিতণ্ডায় টলিউডের অনেকেই মতামত দিচ্ছেন, পক্ষও নিয়েছেন। সূত্র: আনন্দবাজার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here